ঢাকা, ||

তারেকের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি। ক্ষমা চাওয়ার আহবান


বিশেষ প্রতিবেদন

প্রকাশিত: ১:৫২ অপরাহ্ন, ডিসেম্বর ২২, ২০১৪

নিজস্ব সংবাদাতা । : বঙ্গবন্ধু সম্পর্কে কটুক্তি করায় খুলনা জেলা ছাত্রলীগ নেতা শাহ জালাল মোল্লা সুজন এর দায়েরকৃত মামলায় বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেছে আদালত। সোমবার খুলনা জেলা মহানগর হাকিম জাকির হোসেন টিপু শুনানি শেষে অভিযোগ আমলে নিয়ে তারেকের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করে। এর আগে তার বিরুদ্ধে গুলশানে খালেদা জিয়ার বাসভবন ও বিএনপির নয়াপল্টনের কার্যালয়ের ঠিকানায় একটি উকিল নোটিশ পাঠানো হয়। ওই নোটিসে বলা হয়, ‘বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান হওয়ার পরও আপনার মধ্যে রাজনৈতিক পরিপক্কতা ও ইতিহাসের জ্ঞান নেই।

তারেকের বিরুদ্ধে খুলনায় আরো ২টি আদালতে একই অভিযোগে ৩টি অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। দায়েরকৃত অন্য অভিযোগগুলো আদালত আদেশের জন্য রেখেছে। শুনানীর সময় আওয়ামী লীগের আইনজীবী ও নেতারা আদালতে উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ, তারেকের ইতিহাস বিকৃতির ধারাবাহিকতায় গত ১৫ ডিসেম্বর বিজয় দিবস উপলক্ষে লন্ডনে এক আলোচনা সভায় তারেক বঙ্গবন্ধুকে ‘রাজাকার, খুনি ও পাকবন্ধু’ বলে মন্তব্য করে।

এদিকে স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল তারেক বিদেশে বসে পাগলামি করছে মন্তব্য করে তাকে জাতির কাছে ক্ষমা চাওয়ার আহবান জানান। সোমবার দুপুরে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ে বিজয় দিবস উপলক্ষে ছাত্রলীগের আয়োজিত আলোচনা সভায় তিনি এ কথা বলেন।

স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী বলেন, তারেক রহমান বিদেশের মাটিতে বসে মুক্তিযুদ্ধ ও বঙ্গবন্ধু সর্ম্পকে অশালীন মন্তব্য করে শুধু মুক্তিযোদ্ধাদেরকেই অপমান করছেন না বরং সমগ্র জাতিকে অপমানিত করছেন। দেশের প্রচলিত আইনে তার শাস্তি হওয়া উচিত।

অনুষ্ঠানে তিনি আরো বলেন, মানুষ এখন আর দেশে অশান্তি চায় না। তবে বিএনপি দেশকে অস্থিতিশীল করতে বিভিন্ন ষড়যন্ত্র করছে। এতে কোনো লাভ হবে না। তাদের এ ধরনের কার্যকলাপ যেখানেই হবে সেখানেই আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।
দেশে ফিরে তারেক রহমানকে ক্ষমা চাইতে বলেন তিনি।

Top