ঢাকা, ||

কোকোর মৃত্যু কি অবহেলায় কারণে!


ফিচার

প্রকাশিত: ১২:৪৬ অপরাহ্ন, জানুয়ারী ২৮, ২০১৫

আরাফাত রহমান কোকো

আরাফাত রহমান কোকো

আজিজুল হক » » মালয়েশিয়া থেকে: খালেদা জিয়ার ছোট ছেলে আরাফাত রহমান কোকোর মৃত্যু কি অবহেলায় হয়েছে? – এ গুঞ্জন এখন চলছে বিএনপির নেতাকর্মীদের মাঝে। মালয়েশিয়া বিএনপির সভাপতি মোশাররফ হোসেনের একটি সাক্ষাতকার টিভিতে প্রচারের পর এ সন্দেহ আরও ঘনীভূত হয়েছে। অনেক নেতাকর্মীকে ক্ষোভ প্রকাশ করতে দেখা গেছে।

মোশারফ জানায় খালেদা জিয়ার গ্রেফতার নিয়ে দুশ্চিন্তা থেকে আতঙ্কিত হয়ে কোকোর হার্ট এ্যাটাক হয়। এ সময় মোশারফসহ কয়েকজন উপস্থিত ছিল বলেও জানা যায়। উপস্থিত কেউ প্রাথমিক চিকিৎসার কোনো ব্যবস্থা করেনি। কোকোর শ্বাসকষ্টের কথা জানা গেলেও অক্সিজেনের ব্যবস্থা হয়নি যা চাইলেই জোগাড় করা সম্ভব ছিল।

অসুস্থ হওয়ার পর ইমার্জেন্সিতে কল না করে কিংবা কোন এমবুল্যান্স না ডেকে ব্যক্তিগত গাড়িতে করে তাকে কুয়ালালামপুর মালয় ইউনিভার্সিটি সেন্টারে নেয়া হয় যা কোকোর বাসা থেকে প্রায় আড়াই ঘন্টার দূরত্বে। নিকটস্থ কোনো হাসপাতালে না নিয়ে দূরের হাসপাতালে কেন নেয়া হয়েছে এ নিয়েও ক্ষুব্ধ মালয়েশিয়া বিএনপির একটি অংশ।

এদিকে প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, কোকোর মৃত্যুর পর মোশারফ সমর্থকরা কোকোর মৃতদেহের সাথে ছবি তোলায় ও সংবাদ-মাধ্যমে নিজেদের তুলে ধরে ফটোসেশনে বেশি তৎপর হয়ে উঠেছিল।

মালয়েশিয়া ও বাংলাদেশের বিএনপি নেতাকর্মীদের ধারণা অবহেলা ও চিকিৎসার গাফিলতি করে কোকোর অকাল মৃত্যু হয়েছে।

Top